ত্বকের যত্নে শশার উপকারিতাগুলো জেনে নিন

0
143
ত্বকের যত্নে শশার উপকারিতা
ত্বকের যত্নে শশার উপকারিতা

শশা এমন একটি ফল যা ত্বকের বিভিন্ন যত্নে সাহায্য করে থাকে। বন্ধুরা, আলাদা আলাদা সমস্যা দূর করার জন্য আলাদা আলাদা ভাবে এই শশাকে আমরা ব্যবহার করতে পারি। কোন বার শুধুমাত্র শশা ব্যবহারে,  বা কখনো শশার সাথে অন্য কোন উপকরণ মিক্স করে। আমরা আমাদের ত্বকে শশা ব্যবহার করে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের চেষ্টা করতে পারি। শশা এমন একটি ফল যাতে ৯৫% পানির সাথে বিভিন্ন উপকারী উপাদান যুক্ত থাকে। যা আমাদের ত্বকের যত্নে অনেক কার্যকর ভূমিকা রাখে। ত্বকের যত্নে শশার গুরুত্ব অনেক।

ত্বকের যত্নে শশার কার্যকারিতাঃ

  • আজ আপনাদের সাথে শশার যে প্যাক গুলো শেয়ার করতে যাচ্ছি এই প্যাক গুলো ব্যবহারের মধ্য দিয়ে আপনাদের শরীরের বিভিন্ন ধরনের কালো দাগ দূর করে ফেলতে পারবেন।

 

  • আমাদের চোখের নিচের দাগের উপর শশার স্লাইস বসিয়ে রাখলে আমাদের চোখের ডার্ক সার্কেল চলে যায়, বন্ধুরা এটা আমরা সবাই কমবেশি শুনে থাকি। কিন্তু এর ফলাফল কতটা ভালো সেটা কিন্তু জানিনা।

 

  • ত্বকের বিভিন্ন ধরনের কালো দাগ দূর করতে, চোখের নিচের কালো দাগ, বগলের নিচের কালো দাগ,ঘাড়ের পিছনে কালো দাগ, দূর করতে শশা কিন্তু দারুণ কাজ করে।

 

  • শশা কে শুধু সিঙ্গেল ব্যবহার করে ততো ভালো কাজ পাওয়া যায় না। কিন্তু এই শসাকে বিভিন্ন উপকরণের সাথে মিক্স করে ব্যবহার এর মধ্য দিয়ে আমরা চমৎকার ফলাফল পেতে পারি।

 

ত্বকের কালো দাগ দূর করতে শশার ভূমিকাঃ

এই প্যাকটি তৈরি করতে যে সকল উপকরণ লাগবে………

  • ২ চা চামচ শশার রস।
  • ১ চা চামচ কাঁচা হলুদের পেস্ট।
  • ১ চা চামচ চিনি।

ব্যবহার প্রণালিঃ

  • উপকরণ গুলো একসাথে করে আমাদের ত্বকের যে যে অংশে কালো দাগ রয়েছে তার উপর লাগাতে হবে।
  • সপ্তাহে অন্তত তিনবার লাগাতে হবে।
  • এর মধ্য দিয়ে দারুন একটি ফলাফল আপনি পাবেন।

ত্বক কে ঠান্ডা রাখতে শশার অসাধারন ফেইসপ্যাকঃ

  • এই প্যাকটি ব্যবহারের মধ্য দিয়ে আপনাদের ত্বক কে অনেক বেশি ঠান্ডা রাখতে পারবেন।যার ফলে ত্বকের কালো ভাব দূর হয়ে যাবে।

প্যাকটি তৈরি করতে যে সকল উপকরণ লাগবে………

  • ২ টেবিল চামচ শশার রস।
  • ১ টি ডিমের সাদা অংশ।
  • ২ চা চামচ এলোভেরা জেল।

 

 

 

যেভাবে তৈরি ব্যবহার করবেনঃ

  • ডিম থেকে হলুদ অংশটি আলাদা করে নিয়ে শশার প্যাক টির সাথে ভালো মতো মিশাতে হবে।
  • এরপর এটি আমাদের ত্বকে লাগাতে হবে।
  • ভালোমতো লাগাতে পারলে ত্বক অনেক বেশি ঠান্ডা ও উজ্জ্বল, সুন্দর হবে। এবং ত্বকের কালো ভাব দূর হয়ে যাবে বয়সের ছাপ কমিয়ে ফেলবে।

ত্বকের বিভিন্ন ফাটা দাগ দূর করতে শশার ব্যবহারঃ

  • এই প্যাকটি ব্যবহারে শরীরের বিভিন্ন ফাটা দাগ দূর হয়ে যাবে। পায়ের গোড়ালি ফাটা দাগ,গর্ভজনিত কারণে ত্বকের ফাটা দাগ, ঠোঁটের ফাটা দাগ, সব ধরনের ফাটা দাগ শশার এই প্যাক ব্যবহারে চলে যাবে।

কিভাবে তৈরি ব্যবহার করবেন সাথে সাথে কি কি উপকরণ লাগবে…………

  • ২ টেবিল চামচ শশার রস।
  • ২ চা চামচ গোলাপ জল।
  • ১ চা চামচ লেবুর রস।
  • ১ চা চামচ মধু।
  • ২ টেবিল চামচ মুলতানি মাটি।

ব্যবহার পদ্ধতিঃ

  • উপকরণ গুলো ভালো মত ব্লেন্ড করে আমাদের ত্বকের ফাটা অংশে লাগিয়ে দিবেন।
  • এটি যে এত ভালো কাজ করে এই প্যাকটি ব্যবহার না করলে বুঝবেন না।
  • পায়ের গোড়ালি সব ধরনের ফাটা দাগ দূর করতে উপকরণটি দারুন কাজ করে। একটি লাগানোর পরে ধুয়ে ফেলবেন। পরে শুকানোর পর একটু ভালো মানের ময়েশ্চারাইজ ক্রিম লাগিয়ে নিবেন।
  • পায়ের গোড়ালি এত সুন্দর এত নরম হয়ে যাবে এবং আপনার ত্বকের ফাটা দাগ দূর হয়ে যাবে যে আপনি বিশ্বাস করতে পারবেন না।

ত্বককে খুব বেশি ফর্সা উজ্জ্বল করতে শশার কাজঃ

  • ত্বক কে খুব বেশি ফর্সা ও উজ্জ্বল করতে শশা অনেক ভালো কাজ করে। সাথে সাথে বিভিন্ন এলার্জি জনিত কোন সমস্যা যদি থেকে থাকে তাও দূর করে।

এটি তৈরি করতে যে সকল উপকরণ লাগবে…………

  • ২ টেবিল চামচ শশার রস।
  • ২ চা চামচ ক্যাস্টর অয়েল।
  • ২ চা চামচ মিষ্টি কুমড়ার পেস্ট।
  • ১ চা চামচ টক দই।
  • ১ চা চামচ লেবুর রস।

ব্যবহার পদ্ধতিঃ

  • উপকরণ গুলো একসাথে করার পর এই প্যাকটি আমাদের ত্বকে লাগাতে হবে।
  • ২০ মিনিট সময় মতো লাগিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে।

নোটঃ সেন্সেটিভ ত্বকের ক্ষেত্রে লেবুর রস ব্যবহার না করে মধু ব্যবহার করা শ্রেয়।

 

 

 

শশার উপরের প্যাক গুলো এত ভালো কাজ করবে যে আপনারা প্রতিদিন এই প্যাকগুলো ব্যবহার করতে চাইবেন। আশা করি শশার কার্যকারিতা সম্পর্কে  আপনাদের অভিজ্ঞতা অর্জন করাতে পেরেছি। এবার আপনারা আপনাদের সমস্যা অনুযায়ী শশার প্যাক গুলো ব্যবহার করে নিজেকে নিজের কাছে ও অন্যের কাছে আকর্ষণীয় করে তুলুন।  ধন্যবাদ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here