মেয়েরা কেন সঠিক সাইজের ব্রা পড়বে???

0
32

আজকে একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়ে আমি কথা বলব। আজকের বিষয়টি  বিশেষ করে মেয়েদের  উপর গুরুত্ব দিয়ে।

আজকের বিষয়টি হলো মেয়েরা ব্রা কেন পড়ে বা মেয়েদের ব্রা পরা কেন উচিত?

কেন মেয়েরা সঠিক মাপের  ব্রা পড়বে ???

সুপ্রিয় বন্ধুরা, চলুন এই বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা যাক। অন্তর্বাস মেয়েদের একটি গুরুত্বপূর্ণ পোশাক। কেন মহিলাদের ব্রা অতটা অপরিহার্য , কিংবা মেয়েদের আদৌ কি সব সময় ব্রা পরা উচিত???

জানুন বিস্তারিত……….

এটি বাইরের যে কোনো আঘাত থেকে সুরক্ষিত রাখে। এছাড়াও নানা রকম পরিস্থিতির সম্মুখীন হতে হয়।

নারীদেরকেই অনেক সময় নানা রকম কাজ করতে হয় সে ক্ষেত্রে নানা রকম পরিস্থিতি এড়াতে ব্রা পরা দরকার।

শরীরচর্চা করার ব্রেস্ট অনেক সময় বাম দিকে বা ডান দিকে লেগে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে আবার সেফ নষ্ট হয়ে যাওয়ার ও  সম্ভাবনা থাকে।

সাধারণভাবে  শরীর চর্চা বা খেলার সময় ব্রা না পরলে স্তনদুটো লাফাতে থাকে।

অনেকেই স্তনের আকার সঠিক নয় মানে লম্বাটে ধরণের হয়। নিচের দিকে ঝুলে থাকে। সামনের দিকে অতিরিক্ত মোটা হয়ে থাকে।

এছাড়াও পোশাকের উপর দিয়ে বোঝা গেলে তা অস্বস্তির । কারণ পোশাকের সাথে ব্রা না পরলে দেখতে বেশ দৃষ্টিকটু লাগে। তাকে সঠিক জায়গায় থাকতে দেখতে ভালো লাগে।

তাই যত সুন্দর পোশাক পরুন না কেন ব্রা না পরলে দেখতে ভালো লাগবে না।স্তন দুটিকে পোশাকের সাথে সেট করা দরকার আর সেটাই করে থাকে ব্রা।

ব্রা স্তনের দুই দিকের ভারসাম্য বজায় রাখে।

ব্রা স্তনের ওজন ধরে রাখে। স্তনের ওজন কে কাধের মধ্যে ভাগ করে দেয়। তাই সঠিক মাপের ব্রা পরা খুব দরকার। না হলে সে ওজনটা পুরোটাই পড়ে কাধের উপর।এর ফলে ঘাড়ে ব্যথা হতে পারে।

সঠিক মাপের ব্রা না পড়লে অনেক্কন ব্রেস্ট ঝুলে থাকলে স্তনে ব্যথা হতে পারে। এ জন্য সঠিক সাইজ এবং সঠিক ব্রা  আগে দেখে নিন।

কোন সাইজ এর ব্রা পড়লে  যথেষ্ট আরামদায়ক অনুভব করবেন তা বেছে নিন।ব্রা পড়ার কারনে আপনার স্তন যুগল অনেক বেশি আবেদন ময়ী দেখতে লাগবে।

ব্রা পরার  সুবিধা অনেক  গুলো থাকলেও সব সময় কিন্তু ব্রা পরে তাকে একদমই ভালো না।

অনেক সময় দেখা যাচ্ছে সব সময় যারা ব্রা  পড়েন তাদের ব্রেস্ট যথেষ্ট সুগঠিত। এবং ব্রেস্ট নিপল সঠিক আকার পায়।

অন্যদিকে  ব্রা না পড়ার ফলে ব্রেস্টের  রক্ত সঞ্চালন সঠিকভাবে হতে পারে না।  তাই ব্রা পড়ে থাকলে রক্ত সঞ্চালন সঠিকভাবে হতে পারে তার ফলে ব্রেস্ট ক্যান্সারের ঝুঁকি অনেক কম থাকে। এবং ব্রেস্ট টাইট রাখতে সাহায্য করে।

তবে সবসময় ব্রা ছাড়া থাকা সম্ভব নয়।

অনেকেই স্তনের আকার ঠিক রাখতে প্রেগনেন্ট অবস্থায় কি ব্রা পরা যাবে?????

এই প্রশ্নের উত্তর নিয়ে চিন্তায় থাকেন।এই প্রশ্নের উত্তর আমাদের কাছে আছে বন্ধুরা।

এই প্রশ্নের হাজারো উত্তর থেকে সবচেয়ে ভালো উত্তরটি আজ আমি আপনাদের সাথে শেয়ার করতে যাচ্ছি……… ,

প্রেগনেন্ট অবস্থায় ব্রেস্টের নানা রকম পরিবর্তন আসে।ব্রেস্ট অনেক বেশী সেনসিটিভ হয়ে থাকে। এ সময় ব্রেস্ট একটু বড় এবং খুব নরম হয়ে যায়।

এ অবস্থায় ব্রা ব্রেস্ট কে সাপোর্ট দেয়।  এছাড়াও এ সময় একটা খুব সাধারন সমস্যা,  মাঝে মাঝে হয়। তা হল ব্রেস্ট মিল্ক পড়তে থাকে।ব্রা না পড়লে অস্বস্তিকর পরিস্থিতি তৈরি হয়।

ব্রেস্টে ব্যথা হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

কাঁধে ব্যথা হতে পারে।

এখন  না পড়লে বেবি হওয়ার পরেও ব্রা পরতে পারবেন না। তখন ব্রা পরতে খুব কষ্ট হবে।

তাই ব্রা পড়ার অভ্যাস করুন। তবে প্রেগন্যান্ট মেয়েদের জন্য ভাল  হবে  এদের জন্য স্পেশালভাবে ডিজাইন করা এখন বাজারে এসেছে কিছু ব্রা। বেবি হওয়ার আগে এমনি যেকোন ব্রা পরতে পারেন।

বেবি হওয়ার পর ও পড়তে পারেন।

তাহলে জেনে নিলেন তো,

আমাদের জন্য সঠিক সাইজের ব্রা পরা কতটা দরকারি। আর দেখুন ব্রা আপনার সৌন্দর্য কে কিভাবে বিকশিত করতে পারে।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here