মিশ্র ত্বকের যত্নে খুবই উপকারী কিছু অ্যালোভেরার তৈরি ফেসপ্যাক

0
193

অধিকাংশ মানুষের ত্বক মিশ্র হওয়াতে আমরা আমাদের ত্বকের ধরণ ভালোভাবে  বুঝে উঠতে পারিনা। ফলে ত্বকের যত্ন কিভাবে নেওয়া যাবে সেটা নিয়ে ভাবনার তৈরি হয়। আর মিশ্র ত্বক  বিভিন্ন পরিস্থিতিতে বিভিন্ন আকার ধারণ করায় এর যত্ন নেওয়াটা ও মিশ্র হওয়া উচিৎ। তাই মিশ্র ত্বকের যত্ন নেওয়াটা একটু জটিল এবং কষ্টসাধ্য হয়ে পড়ে। কষ্টসাধ্য হলেও এটা যে অসম্ভব তা কিন্তু না। এলোভেরার ফেস মাস্ক ব্যবহার করে মিশ্র ত্বকের যত্ন নিতে পারেন। যা আপনার ত্বকের জন্য অত্যন্ত ফলপ্রসূ। নিন্মে মিশ্র ত্বকের জন্য কিভাবে এলোভেরা জেল দিয়ে ফেস প্যাক তৈরী করবেন তা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হলো

মিশ্র ত্বকের বৈশিষ্ট্যঃ

★ মিশ্র ত্বক খানিকটা তৈলাক্ত খানিকটা শুষ্ক।

★ মিশ্র ত্বক হওয়ার দরুন মুখে অনুজ্জ্বল ভাব ফুটে উঠে।

★ মশ্চারাইজার ব্যবহার করলে মিশ্র ত্বক ভিন্ন ধরনের আচরণ করে।

★ তাপমাত্রা সামান্য পরিবর্তন এই মিশ্র ত্বক তার ধরন পরিবর্তন করে।

★ মিশ্র ত্বকে কপাল, নাকের গোড়ালি এবং থুতনি  তৈলাক্ত থাকে।

★ এবং অন্যান্য অংশ শুষ্ক থাকে।

মিশ্র ত্বকের যত্নে খুবই কার্যকরী কিছু অ্যালোভেরার তৈরি  ফেইসপ্যাকঃ

অ্যালোভেরার তৈরি মিশ্র ত্বকের যত্নে মাস্ক তৈরিতে ব্যবহৃত উপাদানসমূহঃ

★অ্যালোভেরার জেল।

★ গোলাপজল।

★ পেঁপে।

★ কলা।

★অলিভ অয়েল।

★ মাখন।

★ মসুর ডাল।

★টমেটো।

★ লেবু।

★টক দই,ইত্যাদি।

মিশ্র ত্বকের যত্নে অ্যালোভেরার ফেসপ্যাক তৈরির পদ্ধতি

মিশ্রণ ১ঃ

মসুর ডাল টমেটো ও অ্যালোভেরা ফেসপ্যাকঃ

*প্রথমেই দুই চা-চামচ মসুর ডাল পানিতে দু ঘন্টা ভিজিয়ে নিতে হবে।

* 2 চা চামচ অ্যালোভেরার জেল।

* অর্ধেক পাকা টমেটো।

* 1 চামচ লেবুর রস।

* এবং দুই চা চামচ গোলাপ জল।একটি পাত্রে নিয়ে ভালোভাবে ব্লেন্ড করে নিতে হবে। তাহলেই তৈরি হয়ে যাবে আপনার মিশ্র ত্বকের জন্য এলোভেরার অত্যন্ত কার্যকরী একটি ফেসপ্যাক।

মিশ্রণ ২ঃ

টক দই এবং অ্যালোভেরা ফেসপ্যাকঃ

* 2 চা চামচ অ্যালোভেরার জেল।

* 1 চা চামচ টক দই।

* এক চামচ মধু।

* একটি ভিটামিন ই।

একটি পাত্রে নিয়ে ভালোভাবে মিশিয়ে তৈরি করে নিন এলোভেরার ফেসপ্যাক।

মিশ্রণ ৩ঃ

এলোভেরা কলা এবং পেঁপের মাস্কঃ

পরিমাণমতো কলা পরিমাণমতো পেঁপে এবং দুই চা-চামচ এলোভেরার সাথে এক চামচ মধু যোগ করে নিয়ে তৈরি করে নিন মিশ্র ত্বকেরযত্নে  অ্যালোভেরার কার্যকরী ফেসপ্যাকটি।

মিশ্র ত্বকে কিভাবে এলোভেরা ফেস মাস্ক ব্যবহার করে কার্যকরী ফলাফল পেতে পারেনঃ

★ ফেস মাস্ক ব্যবহারের পূর্বে প্রথমেই মুখ ভালো ভাবে ধুয়ে নিন।

★ ফেস মাস্ক ত্বক নরম কোন জিনিস দিয়ে মুখে লাগিয়ে ভালোভাবে স্ক্রাব করে নিন।

★ 25 থেকে 30 মিনিটে শুকানোর জন্য সময় দিন

★ তারপর কুসুম গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে নিন।

★ভালো ফলাফল পেতে সপ্তাহে তিন থেকে চারবার এটি ব্যবহার করুন।

বিশেষ দ্রষ্টব্যঃ

★★তোকে যদি এলার্জি প্রবলেম থাকে তাহলে। মিশ্র ত্বকে অ্যালোভেরা ফেসপ্যাক সরাসরি ব্যবহারের পূর্বে শরীরের অন্য জায়গার ত্বকে এটি প্রয়োগ করে দেখুন।

★★ ফেসপ্যাক লাগিয়ে রোদে বের হবেন না।

মিশ্র ত্বকে উপরুক্ত অ্যালোভেরার ফেসপ্যাক ব্যবহারের উপকারিতাঃ

মিশ্র ত্বকের ক্ষেত্রে কপাল, নাকের, গোড়ালি এবং থুতনির অংশ তৈলাক্ত হয়ে যায়। যাকে টি- জোন বলা হয়।

★উপরোক্ত এলোভেরার ফেস মাস্ক তিনজনের তৈলাক্ত ভাব দূর করে ত্বকের আর্দ্রতা ধরে রাখে।

★ ফেসপ্যাক ব্যবহৃত মধু এবং অন্যান্য উপাদান ব্রণ সৃষ্টি কারি ব্যাকটেরিয়া দূর করে।

★ত্বক থেকে বিভিন্ন দাগ এবং বলিরেখা দূর করে।

★মিশ্র ত্বকের খুব সহজেই বুড়িয়ে যাওয়া ভাব অ্যালোভেরা ফেসপ্যাক গুলো দূর করে।

★ মিশ্র ত্বক একটু অনুজ্জ্বল প্রকৃতির হয় কিন্তু অ্যালোভেরা ফেসপ্যাক ব্যবহারের ফলে আপনার ত্বক সজীব এবং উজ্জ্বল হয়ে উঠবে।

★ ফোনে ব্যবহৃত টক দই এবং ভিটামিন-ই ত্বকের কালচে দাগ দূর করবে।

★ এছাড়াও অ্যালোভেরায় বিদ্যমান অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং বিভিন্ন উপাদান আমাদের মিশ্র ত্বকের জন্য অত্যন্ত উপকারী।

★ উপরোক্ত ফেসপ্যাক গুলি আপনার মিশ্র  ত্বককে উজ্জ্বল এবং ফর্সা করে তোলে।

★★ মনে রাখবেন মিশ্র ত্বকের যত্নে। জেল জাতীয় ক্লিনজার ব্যবহার করতে হবে

ত্বকের যত্নে এলোভেরার তৈরি ফেসপ্যাক যে কতটা গুরুত্বপূর্ণ সেটা  সবারই জানা। মিশ্র ত্বকের যত্নে এলোভেরা ঠিক সমানভাবেই গুরুত্বপূর্ণ এবং কার্যকরী। উপাদানসমূহ একত্র করে আপনি ঘরে বসেই নিজের মিশ্র ত্বকের  যত্নে  অ্যালোভেরার এই ফেস্প্যাক গুলো তৈরি করে নিতে পারেন সম্পূর্ণ প্রাকৃতিক উপায়ে। এবং নিজের ত্বককে করে নিতে পারেন উজ্জ্বল ফর্সা সজীব এবং প্রাণবন্ত। মানুষ মাত্রই সুন্দরের পূজারী। তাই আপনার সৌন্দর্যকেও ফুটিয়ে তুলুন।

ধন্যবাদ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here