উজ্জ্বল ও ফর্সা ত্বকের জন্যে কফির ফেসপ্যাক

0
195

কফি যেমন আমাদের শরীরের ক্লান্তি ভাব দূর করে তেমনি আবার আমাদের উজ্জ্বল ও ফর্সা ত্বকের গোপন রহস্য হিসেবে কাজ করে। কফি তেমনি আমাদের মলিন ভাব টাও দূর করে। আমরা তো সারাদিন বাইরে থাকি। তাই বাইরের ধূলাবালি আমাদের ত্বকে ভাইরাস, ব্যাকটেরিয়া গুলো জমাট বেঁধে যায়। কিন্তু কফির প্রলেপ যদি আপনার ত্বকে দেয়ালের মতো লেগে থাকে তাহোলের এই ভাইরাস ব্যাকটেরিয়া আর ছত্রাকের মতো জীবাণু থেকে আপনার ত্বককে রক্ষা করা সম্ভব। কেননা কফিতে এমন কিছু উপাদান রয়েছে যা আমাদের ত্বককে পরিষ্কার করে। আর কফিতে আছে ক্যাফিক এসিড যা আমাদের মুখের ত্বকের লোমকূপ গুলো খুলে দেয় এর ফলে ত্বক থাকে কোমল, মসৃণ এবং পরিষ্কার। আসুন জেনে নেই কফি দিয়ে তৈরি সহজ কয়েকটি ফেসপ্যাক।

 

১।কফি আমাদের চোখের নিচের কালো দাগ দূর করতে দারুণ কাজ করে। আমরা সাধারণত সকালে কফি খেয়ে থাকি। মন যেভাবে চাঙ্গা হয় ঠিক সেইভাবে সতেজ ও মনে হয়। আমরা কফি খেয়ে কফির দানা গুলোকে না ফেলে ঠান্ডা করে চোখের চারপাশে লাগিয়ে নিন। ২০ মিনিট লাগিয়ে রাখার পর তারপর ভালোভাবে চোখ ধুয়ে ফেলুন। চোখের কালো দাগ দূর করা, ত্বকের উজ্জলতা বাড়াতে কফি দারুণ কাজ করে। তাই কফিকে আপনি ফেস প্যাক হিসেবে ব্যবহার করতে পারুন।

 

২।ত্বক উজ্জ্বল এবং ত্বকে ব্রণ মুক্ত করার জন্যে কফির মাস্ক বিশেষভাবে কাজ করে। কফি আমাদের ত্বক পরিষ্কার রাখতে ফেসপ্যাক হিসেবে কাজ করে। কফি আমাদের 90ত্বককে ব্রেকআউট থেকে রক্ষা করে, মুখের দাগ হালকা করে ও ত্বক মসৃণ করে উজ্জ্বল রাখতে সহায়তা করে। এই ফেস প্যাক বানাতে প্রথমে ১ টেবিল চামচ কফির গুঁড়া সাথে ১ চা চামচ হলুদের গুঁড়া আর ১ টেবিল চামচ দই একসাথে মিশিয়ে নিন। একসাথে মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। এবার এই প্যাক সারা মুখে লাগিয়ে ২০ মিনিট রেখে দিন। এবার শুকিয়ে গেলে ভালোভাবে ঠান্ডা পানিতে ধুয়ে ফেলুন। দেখবেন কফি আপনাদের ত্বকে খুব ভালোভাবে উজ্জলতা ফিরিয়ে দিবে।

 

৩।শুধু উজ্জ্বলতা আর সুন্দরের জন্যে নয় বয়সের ছাপ কমাতে এমন কি মুখের ত্বককে টান টান করতে কফি দারুণ কাজ করে। ত্বককে প্রাকৃতিকভাবে আর্দ্র রাখতে কফি বেশ কার্যকর। কফি বয়সের ছাপ, বলিরেখা, শুষ্কতা ও দাগছোপ কমাতে সহায়তা করে।এই সমস্যা সমাধানে কফির ফেসপ্যাক বানাতে পারেন। কফির ফেসপ্যাক বানাতে প্রথমে একটি বাটিতে এক টেবিল চামচ কফি গুঁড়া সাথে এক টেবিল-চামচ মধু একসাথে মিশিয়ে নিন। এবার ভালোভাবে মিশিয়ে মুখে আলতো করে ম্যাসাজ করুন। ম্যাসাজের পরে ২০ মিনিট অপেক্ষা করুন। তারপর ফেইস ওয়াশ কিংবা সাবান দিয়ে ভালোভাবে পরিষ্কার করে ঠান্ডা পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন।

 

৪।কফির গুঁড়া ত্বকের জন্য উপকারী। কফির গুঁড়া ত্বক মসৃণ, টানটান, আর্দ্র ও উজ্জ্বল করতে সাহায্য করে। কফির গুঁড়া ত্বকের লোম, শরীরের সেলুলাইট এমনকি ত্বকের মৃত কোষ ও ব্ল্যাক হেডস দূর করতে সাহায্য করে। তবে এক্ষেত্রে কফির গুঁড়ার সাথে কিছু উপকরণ মিশিয়ে ফেইস প্যাক বানানো যাবে। এই প্যাক বানাতে প্রথমে তিন টেবিল-চামচ বাদামি চিনি এর সাথে তিন টেবিল-চামচ কফির গুঁড়া ও তিন টেবিল-চামচ নারিকেল তেল একসাথে মিশিয়ে নিন। এবার এই মিশ্রণ টি শরীরে ভেজা অবস্থায় ভালোভাবে লাগিয়ে নিন।

 

উপরের যে উপায় গুলো বলা হয়েছে সবগুলো কফির সাথে মিলিয়ে বিভিন্ন সহজ উপায়ে তৈরি করা হয়েছে। বর্তমানে কফি একটি সহজলভ্য পানীয়। সুতরাং কফি দিয়ে আপনি সহযে ঘরোয়া ভাবে রূপচর্চা করতে পারবেন। কফি যেমন আপনার চিন্তা ভাবনা কে চাঙ্গা রাখে ঠিক তেমনি আপনার ত্বককে রাঙ্গানো রাখে।

 

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here