ত্বকের উজ্জ্বলতা ও লাবন্যতা ধরে রাখতে যে খাবার গুলো খাবেন

যে সকল খাবার খেলে আমাদের ত্বকের উজ্জ্বলতা ও লাবণ্য ধরে রাখা যায় আজকে এই বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করবো। বন্ধুরা, কমবেশি আমরা সবাই জানি আমাদের খাবারের সাথে ত্বকের উজ্জ্বলতার একটি ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক রয়েছে। কিন্তু আপনারা যা জানেন না সেটি হলো ত্বকের উজ্জ্বলতা ধরে রাখার জন্য তিনটি বিষয়ের ব্যালেন্স আমাদের থাকা দরকার। প্রথমত হলো সাউন্ড স্লিপ, বা ঘুম। এরপর নিয়মিত ব্যায়াম করতে হবে। সর্বশেষ হল সুষম খাবার। এই তিনটি বিষয়ের মধ্যে যদি আমরা ব্যালান্স রাখতে পারি আমাদের ত্বকের সৌন্দর্য আপনাআপনি বৃদ্ধি পাবে।

ত্বকের উজ্জ্বলতা ধরে রাখার ক্ষেত্রে খাবারের ভূমিকাঃ

  • আমরা নিয়মিত সাধারণত ঘুম এবং ব্যায়াম এর ক্ষেত্রে সচেতন থাকি, যে বিষয়ে আমরা সচেতন থাকি না সেটি হল খাবারের ক্ষেত্রে। আমরা পেট ভরে খায় কিন্তু বুঝিনা কোন খাবারটি আমাদের জন্য উপকারী আর কোনটা আমাদের জন্য উপকারী নয়।
  • ত্বকের সৌন্দর্য ধরে রাখতে কতগুলা খাবারের প্রতি বিশেষ মনোযোগ দিতে হবে।

আজকে আমরা এই বিষয়ে আপনাদের সাথে কথা বলব কোন কোন খাবারগুলো আপনার নিয়মিত খাদ্যতালিকায় আপনি রাখবেন।

ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করার ক্ষেত্রে লেবুর ভূমিকাঃ

  • লেবু খাবারের তালিকায় অবশ্যই রাখতে হবে। কারণ লেবুতে ভিটামিন সি থাকে। আর আমরা জানি ভিটামিন-সি ত্বকের সৌন্দর্য ধরে রাখতে এবং মৃত কোষ কে সরিয়ে নতুন কোষ উৎপাদন করতে সাহায্য করত।
  • রক্ত সঞ্চালন ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়াতে কতটা কাজ করে তাই ভিটামিন সি এর গুরুত্বপূর্ণ উৎস লেবু আমাদের খাদ্য তালিকায় রাখতে হবে।

ত্বক ফর্সা করতে গাজরের ভূমিকাঃ

  • আমাদের ত্বকের সৌন্দর্য বা রঙের ক্ষেত্রে মেলানিন নামক উপাদান কিন্তু খুব বেশি দায়ী। মেলানিন এর উপস্থিতির জন্য আমাদের ত্বক কালো এবং ফর্সা হয়। আমাদের উচিত মেলানিন নামক উপাদান উৎপাদনে আর এক্ষেত্রে গাজর নামক উপাদানটি বেশি কাজ করে।
  • খাবার হিসাবে আমরা যখন গাজর খায় তখন সেই গাজর আমাদের ত্বকের মেলানিন এর কার্য ক্ষমতার উপর ব্যাপক নিয়ন্ত্রণ রাখে। তাই বন্ধুরা এই খাদ্য আমাদের খাদ্য তালিকায় নিয়মিত রাখা উচিত।

ত্বকের লাবন্যতা ধরে রাখতে শুকনো মুড়ির কাজঃ

  • খাদ্যতালিকায় কম হলে ও ৫০ গ্রাম মুড়ি ভালো হয় যদি ১০০ গ্রাম রাখতে পারেন তাহলে আরো ভালো।
  • নিয়মিত এই মুড়ি খাবার অভ্যাস যদি আমরা গড়ে তুলতে পারি আমাদের হজমক্রিয়া এই বিষয়টি অনেক ভাবে সাহায্য করে। এবং এই হজমক্রিয়া যদি ভালো থাকে বিভিন্ন ধরনের কোষ্ঠকাঠিন্য আমাদের দূর হয়ে যায়। আর কোষ্ঠকাঠিন্য কিন্তু আমাদের ত্বকের উজ্জলতা সৃষ্টিতে মারাত্মক ব্যাঘাত ঘটায়। যেমন ব্রন ও এলার্জি জনিত সমস্যার পেছনে প্রধান ভূমিকা কিন্তু কোষ্ঠকাঠিন্য রোগের কারণে হয়ে থাকে।
  • তাই শরীরের হজমক্রিয়া ঠিক রেখে শরীরের উজ্জ্বলতা ধরে রাখতে আমাদের প্রতিদিন খাদ্য তালিকায় শুকনো মুড়ি নামক খাদ্যটি রাখতেই হবে।

ত্বকের গ্লোয়িং ভাব ধরে রাখতে সবুজ টাটকা শাকসবজির ভূমিকাঃ

  • নিয়মিত টাটকা সবজির সাথে অবশ্যই আমাদের বেশি করে পানি খেতে হবে। কারণ বেশি পরিমাণ পানি আমাদের ত্বকের উজ্জ্বলতা এবং বয়সের ছাপ এর যে সমস্যা তা দূর করতে সহায়তা করে।
  • এছাড়াও যেকোনো হলুদ রঙের ফল এবং সবজি খাওয়া উচিত। কারণ হলুদ রঙের ফল এবং সবজি ত্বকের উজ্জ্বলতা ধরে রাখার যত ধরনের উপাদান দরকার তার সবগুলোই পরিমাণমতো থাকে।
  • তাছাড়া কাজুবাদাম বা এই ধরনের ফলগুলো বা সবজি আমাদের খেতে হবে।
  • হলুদ ফলের মধ্যে পাকা পেঁপে, কাঁঠাল, পাকা কলা, গ্রিন-টি, মিষ্টি দই, এই সব ধরনের খাবার ও কিন্তু আমাদের ত্বকের উজ্জ্বলতা ধরে রাখতে সহায়তা করে।
  • আর ডিমের কথা না বললেই নয়। ডিম তো আমাদের ত্বককে ভেতর থেকেই সুগঠিত হতে সহায়তা করে এবং আমাদের উজ্জলতাও লাবণ্যতা ধরে রাখতে ডিমের কথা না বললে হবে না।
  • আর পাশাপাশি রয়েছে গরুর দুধ। গরুর দুধ আমাদের দেহের বিভিন্ন ধরনের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা তৈরি করে। আর ত্বকে বিভিন্ন ধরনের অ্যালার্জি জনিত সমস্যা হলে তা দূর করতে সাহায্য করে। এর পাশাপাশি আমাদের ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়ায় এবং মেলানিনের উৎপাদনকে নিয়ন্ত্রণে রাখে। 

নোটঃ ত্বকে অ্যালার্জি থাকলে লেবুর পরিবর্তে মধু খেতে পারেন।

বন্ধুরা উপরে যে খাবারের কথাগুলো বললাম এই খাবারগুলো নিয়মিত আমাদের খাদ্য তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করতে পারলে আমাদের ত্বকের উজ্জ্বলতা ও লাবণ্য ধরে রাখা খুবই সহজ হবে। ধন্যবাদ।

Leave a Comment